Home Loan

Home Loan: প্রায় প্রত্যেকেরই স্বপ্ন থাকে নিজের একটি ভালো বাড়ি থাকুক। তবে এই স্বপ্ন সফল করতে এর অনেক মুল্যও দিতে হয় অনেককে। কারন স্বপ্নের বাড়ি তৈরি করতে চাই যথেষ্ট পরিমাণ টাকা। কিন্তু সবার পক্ষে এই টাকার জোগার করা আবার সম্ভবপর হয় না। এক্ষেত্রে স্বপ্নকে সত্যি করতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেয় হোম লোনগুলি।

তবে হোম লোনের (Home Loan) টাকায় স্বপ্নের বাড়ি বানানোর পর চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়ায় হোম লোনের টাকা পরিশোধ করাটা। কারন বড় সুদের বোঝা তখন একটি চিন্তার বিষয়। সবাই চান, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই চাপ থেকে মুক্ত হতে।সুদের হার বেড়ে যাওয়ার আগেই অনেকেই বাড়ি তৈরির ঋণ গুটিয়ে নেওয়ার কথা ভাবেন। নতুন ঋণ গ্রহীতাদের বোঝা দীর্ঘদিন বহন করতে হয়।

DA Case Update: ডিএ মামলায় নতুন মোড়! পুজোর আগে DA ? বিস্তারিত জেনে নিন এখুনি

তবে আপনি যদি নির্দিষ্ট কিছু দিকে মনোনিবেশ করেন তাহলে আপনি শীঘ্রই ঋণমুক্ত হতে পারেন। সুদের হার কম হলে আমরা সবাই আনন্দ করি। কিন্তু যখন সুদের হার বাড়ছে তখন আমরা কিছুটা হলেও চিন্তিত থাকি। প্রকৃতপক্ষে মুদ্রাস্ফীতির ভিত্তিতে সুদের হার ওঠানামা করে। সাধারণত একটি হোমলোন ১৫ থেকে ২০ বছরের দীর্ঘমেয়াদী হয়। এই মেয়াদের মধ্যেই সুদের হার ওঠানামা করে। সুতরাং এই ওঠানামাগুলিকে নেতিবাচক আলোতে দেখা এড়িয়ে চলাই ভালো।

কারণ সুদের হার বাড়লেও এটি আপনার EMI-কে প্রভাবিত করবে না। এটি আপনার মাসিক বাজেটও নষ্ট করবে না। শুধুমাত্র আপনার মেয়াদ বাড়ানো হবে। যখন সুদের হার হ্রাস পায়। তাই সময় মতো ইএমআইয়ের মাধ্যমে টাকা শোধ করা আপনার জন্য ভালো। অন্যথায় দেরি করে শোধ করলে অকারণে ঋণ তখন বোঝায় পরিণত হবে।

প্রতিদিন ১ টাকা করে জমালেই পেয়ে যেতে পারেন ১৫ লক্ষ টাকা জানেন কি?

এক্ষেত্রে ইএমআইর সঙ্গে আরও বেশি টাকা জমা করতে হবে।টাকার পরিমাণ বেড়ে গেলে অনেক সময়ে একটু ঝুঁকিও থাকে। আবার এই ধরনের পরিস্থিতিতে একটি নতুন লোন পেতে আপনার খরচ বেশি হবে। নিরাপদে থাকার জন্য আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ৩টি ইএমআই দিতে যত পরিমাণ টাকা লাগে তা রেখে দেওয়া ভালো।

১)স্বল্প সুদে ঋণ নেওয়ার চেষ্টা

এছাড়াও কম সুদ নেওয়া ব্যাঙ্কগুলি থেকে ঋণ নেওয়ার চেষ্টা করুন। এখানে মূল বিষয় হল ঋণের পরিমাণ কমপক্ষে ৫০ পয়েন্টে কম হওয়া উচিত। তবেই এটি দীর্ঘমেয়াদী বোঝা কাটবে।

২)প্রিম্যাচুয়র ক্লোস

আপনার কাছে যখনই অতিরিক্ত অর্থ থাকবে তখনই মূল পরিমাণ অংশে পরিশোধ করুন। এছাড়াও প্রতিবছর অতিরিক্ত ইএমআই দেওয়ার চেষ্টা করুন। বোনাস এবং অন্য উৎসগুলি থেকে যে পরিমাণ অর্থ আসবে তা দিয়ে ঋণের পরিমাণ কমানো যেতে পারে। যদি প্রতিবছর ঋণের পরিমাণের ৫ শতাংশ করেও শোধ করা যায় তাহলে ভালোভাবে সঞ্চয় করতে পারেন এবং ঋনমুক্ত হতে পারেন খুব তাড়াতাড়ি।

Dearness Allowance: রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা আশাবাদী আইনি পথে জয় আসবেই,৩১% বকেয়া DA দিতেই হবে

৩)ইএমআই হাইকিং 

আপনার ইএমআই আপনার মাসিক আয়ের ৩০ থেকে ৪০% এর বেশি হওয়া উচিত নয়। আপনার আয় বেড়ে গেলে আপনি ইএমআই বাড়াতে পারেন কিনা তা পরীক্ষা করে দেখুন।

By Probir Biswas

আমি প্রবীর বিশ্বাস Webscte.in এ সকল প্রকারের স্কলারশিপ সহ বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য, সাথে টেক নিউজ, বিনোদন, ব্যবসা-বানিজ্যের ওপরও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আপডেট দিয়ে থাকি, ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.