Strong relationship Tips

Strong relationship Tips: কথায় আছে সংসার সুখের হয় রমণীর গুণে। সুখী দাম্পত্য জীবন সকলেরই কাম্য।স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যেকার সম্পর্ক সত্যিই খুব সুন্দর। টক, ঝাল, মিষ্টি সব মিশিয়ে। তাই ঝগড়া যেমন হবে, আবার রোম্যান্সও থাকবে ভরপুর।সংসারের সুখের ভরকেন্দ্র স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক এর মধ্যেই নিহিত থাকে। (Strong relationship Tips) কারণ সুখের সংসার স্বামী ও স্ত্রীর দুজনের ভূমিকা থাকে।

একটি সংসারের মূল চালিকা শক্তি হলো স্বামী স্ত্রীর বন্ধন । আমরা সকলেই জানি যে সংসারে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে সম্পর্ক ভালো থাকে সে সংসার সুখী সংসার।স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক যতই দৃঢ় বা মজবুত হয়, বাচ্চাদের ও সুখের জীবনের দেওয়ালগুলো ততই মজবুত হয়। স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক এর ওপর গোটা পরিবারের সাস্থ্য নির্ভর করে।

একটি পরিবার গড়তে স্বামী-স্ত্রী দুজনের (Strong relationship Tips) ভূমিকাই মুখ্য। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আর্থিকভাবে পরিবারকে সচ্ছল করার পেছনে স্বামীর অবদান বেশি থাকে। আবার পরিবারের অভ্যন্তরীণ শান্তি বজায় রাখার ক্ষেত্রে স্ত্রীর অবদান থাকে বেশি। দুজনের ছোট ছোট ত্যাগ ও অবদানই একটি সুখী পরিবার গড়তে পারে। সম্পর্ক সুন্দর রাখতে দুজনেরই সমান প্রচেষ্টা জরুরি। এক্ষেত্রে স্বামীর যেমন কিছু করণীয় রয়েছে, তেমনই রয়েছে স্ত্রীরও।

স্বামীর সঙ্গে সম্পর্ক সুন্দর (Strong relationship Tips) রাখতে স্ত্রীর কি করণীয় জেনে নিন:-

১)একসাথে সময় কাটানো

স্বামী-স্ত্রীর একে অপরের সঙ্গে আরও বেশি করে সময় কাটানো উচিত। এটি অনুভূতির ভুল ব্যাখ্যার সম্ভাবনা হ্রাস করে। ক্লান্তিকর দিনের পরে যখন তার কাঁধে হাত রেখে জিজ্ঞেস করবেন,আজকের দিনটি কেমন ছিল? তখন সে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তার অনুভূতি প্রকাশ করবে।

২)স্বামীর বন্ধু হয়ে থাকুন

ভালো ও খারাপ সব সময়েই স্বামীর পাশে থাকুন। স্বামীকে সাহায্য করুন, ভালো পরামর্শ দিন। তার যৌক্তিক কথায় সমর্থন করুন। স্বামীর সঙ্গে ভালো থাকার উৎকৃষ্ট উপায় হলো প্রশংসা করা। তার মতামতের মূল্য দিন এবং দয়াশীল থাকুন। প্রশংসা পেলে স্বামী সবসময় আপনার ওপর খুশি থাকবেন। তাই নিন্দা করবেন না এবং স্বামীর মা-বাবা ও আত্মীয়-স্বজনকে নিয়ে কটু মন্তব্য করবেন না। নিজের বন্ধুদের সামনে স্বামীকে আনুন এবং পরিচয় করিয়ে দিন।

৩)একসঙ্গে ঘুরতে যান

স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে কোথাও ঘুরতে গেলে উভয়ের মধ্যে সম্পর্ক ভালো হয়। অবসর পেলে কোনো রেস্তোরাঁয় খেতে যাওয়া যেতে পারে। দীর্ঘ ছুটিতে গ্রামের বাড়ি বা কোনো দর্শনীয় স্থান থেকে ঘুরে আসতে পারেন। মনে রাখতে হবে, স্বামী-স্ত্রী একে অপরের বন্ধু। সপ্তাহে অন্তত একবার হলেও স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে বের হোন।

৪)বিনীত হোন

বিনীত, নম্র-ভদ্র মানুষ সবার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখতে পারেন। হিংসুক, উদ্ধত ও অনমনীয় হলে কারও সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকে না। তাই স্বামীর সঙ্গে সুসম্পর্ক ধরে রাখতে বিনীত হোন। স্বামী যা চায় সেদিকে নজর রাখাও স্ত্রীStrong relationship Tipsদের দায়িত্ব। ঘরে শান্তি বজায় রাখার জন্য তার পছন্দ-অপছন্দকে গুরুত্ব দিন।

৫)সন্তুষ্ট থাকুন

নিজে যা চান, তা স্বামী দিতে না পারলে হতাশ হবেন না। জীবন সঙ্গীর সামর্থ্যের কথা বিবেচনা করুন। অনেক স্ত্রী স্বামী কী দিতে পারল না তা নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ করতে থাকেন। অনেক সময়ে নিজের বান্ধবীদের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করেন। যার ফলে স্বামীর সঙ্গে সম্পর্ক শীতল হতে থাকে। স্বামীকে খুশি রাখার জন্য অল্পতে সন্তুষ্ট থাকা স্ত্রীর জন্য উত্তম। স্বামী যে জিনিস উপহার হিসেবে দেবেন সেটি নিয়ে স্ত্রীকে সন্তুষ্ট থাকাই দাম্পত্য সম্পর্কের সুস্থতার ক্ষেত্রে বাঞ্ছনীয় বিষয়।

৬)আত্মত্যাগ

মাঝে মাঝে ছোটোখাটো আত্মত্যাগ করাই যায়। এতে যে ত্যাগ করে তার মধ্যে একটা আলাদা অনুভূতি জাগে, একটা ভালো লাগার অনুভূতি।তাই স্বামীর জন্য যদি কিছু আত্মত্যাগ করতে পারেন, তাহলে সেই সম্পর্ক জীবনভর মধুরতা বহন করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.