Recruitment scam in Bengal: এবার রাজ্যের ২০ হাজার অস্থায়ী পদে নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ চাকরিপ্রার্থীরা

Recruitment scam in Bengal: দুর্নীতির অভিযোগের শুরুটা হয়েছিল শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে।শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগে তোলপাড় গোটা রাজ্য।এই শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম ঘিরে কেঁচো খুঁড়তে কেউটে বেড়িয়ে আসছে।দফায় দফায় দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে শাসকদলের বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই স্কুলের শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে বড়সড় দুর্নীতির মামলায় জড়িয়ে পড়েছে শাসক দলের শীর্ষস্থানীয় একাধিক নেতৃত্বের নাম। কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের হওয়ার পর থেকেই মুখ পুড়েছে রাজ্য সরকারের।

শুধু স্কুলে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে নয়, দমকল বিভাগে নিয়োগের ক্ষেত্রেও বড়সড় বেনিয়মের অভিযোগ উঠেছে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। দমকল বিভাগে নিয়োগের ক্ষেত্রে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে চাকরি প্রার্থীদের একাংশ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন।চাকরি প্রার্থীদের একাংশের মামলাতেই নিয়োগে স্থগিতাদেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট (Recruitment scam in Bengal) ।রাজ্যে নিয়োগ ঘিরে একের পর এক অনিয়মের গুচ্ছ গুচ্ছ অভিযোগ প্রকাশ্যে আসছে।

Advertisement

এবার রাজ্যের বিভিন্ন দপ্তরে ডাটা এন্ট্রি অপারেট-সহ একাধিক অস্থায়ী পদে নিয়োগেও দুর্নীতির অভিযোগ উঠল। (Recruitment scam in Bengal) দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে কলকাতা হাই কোর্টের(Calcutta High Court) দ্বারস্থ হয়েছেন চাকরি প্রার্থীরা।চাকরি প্রার্থীরাদের অভিযোগ নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনও নিয়মই মানেননি দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা।পালটা গ্রহণ যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে মামলা খারিজের আরজি জানিয়েছে রাজ্য সরকার।

২০২১ সালে সাড়ে ৫ হাজার এবং ২০২২ সালে ১৫ হাজার ডাটা এন্ট্রি অপারেটর (Data Entry Operator) সহ বিভিন্ন পদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করা করা হয়।রাজ্য সরকারের তরফে দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা এই বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল।অভিযোগ উঠেছে নিয়োগের ক্ষেত্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা কোনও নিয়মই মানেননি।এমনকী সুপ্রিম কোর্টের গাইড লাইনও মানা হয়নি বলে অভিযোগ দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসিন্দা সইফুদ্দিন-সহ ১১ জন চাকরিপ্রার্থীর।

Advertisement

এ বিষয়ে মামলাকারীদের আইনজীবী পঙ্কজ হালদার, তাপস মান্নার দাবি, গোটা নিয়োগ প্রক্রিয়াই বেআইনি। টাকার বিনিময়ে চাকরি (Recruitment scam in Bengal) দেওয়া হচ্ছে।আইনজীবীরা জানান ২০২১ সালে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয় ২-৮ আগস্ট পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন নেওয়া হবে। আর আবেদন করার শেষ দিন থেকেই ইন্টারভিউ হবে। আইনজীবীদের প্রশ্ন তাহলে আগে থেকেই প্যানেল তৈরি ছিল কি?

তা নাহলে আবেদন শেষ হওয়ার আগেই ইন্টারভিউ শুরু হয় কী করে। এছাড়াও সুপ্রিম কোর্টের গাইডলাইন বলছে, নিয়োগের ক্ষেত্রে আগে লিখিত পরীক্ষা, নথি পরীক্ষা, তারপর ইন্টারভিউ হয়। কিন্তু এখানে সরাসরি ইন্টারভিউ হয় কীভাবে?

একইভাবে ২০২২ সালের জুলাই মাসেও বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে। সেই নিয়োগ পক্রিয়া চলছে। ওই বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ করে জনস্বার্থ মামলা (Recruitment scam in Bengal) দায়ের করেছেন চাকরি প্রার্থীরা।এই আবেদনের ভিত্তিতে রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থার জবাব তলব করেছে আদালত। তিন সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা দিতে হবে।

Probir Biswas

আমি প্রবীর বিশ্বাস Webscte.in এ সকল প্রকারের স্কলারশিপ সহ বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য, সাথে টেক নিউজ, বিনোদন, ব্যবসা-বানিজ্যের ওপরও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আপডেট দিয়ে থাকি, ধন্যবাদ।

Related Articles