Post office RD

Post office RD: পরিস্থিতি মানুষকে অনেক কিছু শিখিয়ে দেয়। বিশেষ করে করোনা পরিস্থিতিতে মানুষ যখন কর্মহীন হয়ে পড়েছে,তখন অনেকেই সঞ্চয়ের মাহাত্ম্যের বিষয়টি টের পেয়েছেন। আসলে অনেকেই মনে করেন, আগে বর্তমান পরিস্থিতিটা ভালো করে কাটিয়ে নিই, তারপর না হয় ভবিষ্যতের কথা ভাবা যাবে। কিন্তু এটা একদমই ভুল ধারনা। মানুষের জীবনে সঞ্চয়ের গুরুত্ব অপরিসীম।আয় করা শুরু করলেই আমাদের সঞ্চয়ের কথা ভাবা উচিত।

বর্তমান দুনিয়ায় বহু দম্পতি সন্তান জন্মের আগে থেকেই তাঁর ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তায় থাকেন।সন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে নানা আর্থিক পরিকল্পনাও থাকে সকলেরই।তাই সন্তানের ভবিষ্যৎ এর কথা ভেবে বিনিয়োগের পথ বেছে নেন।যাঁরা বিনিয়োগের নিরাপদ উপায় খুঁজছেন তাঁদের জন্য পোস্ট অফিস একটি দারুন স্কিম রয়েছে।

এই স্কিমে (Post office RD) মাত্র 67 টাকা বিনিয়োগ করলে 5 বছরেই শিশু লাখপতি হয়ে যেতে পারবে।প্রতিটি বাবা-মায়েরই নিজের সন্তানের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করতে এই স্কিমে বিনিয়োগ করা উচিত। তবে চাইলে কোনও ব্যক্তি নিজের নামেও এই স্কিমে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন।কি সেই স্কিম বিস্তারিত জানুন।

পোস্ট অফিসে RD (Post office RD) খুলে ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করুন?

বিনিয়োগের জন্য একাধিক অপশন থাকলেও দেশের বহু মানুষ এখনও Small Savings-এর জন্য Post Office-এর উপরেই ভরসা রাখেন। সারা দেশে দেড় লাখের বেশি ডাকঘর বা Post Office রয়েছে। এর অর্থ হল, যে কোনও ব্যক্তি দেশের যে কোনও প্রান্ত থেকে নিজের বাড়ির খুব কাছেই এই সেভিংসের সুযোগ পাবেন। পোস্ট অফিসে জনপ্রিয় Savings Scheme গুলির মধ্যে একটি হল RD 5 বছরের জন্য এই RD (Post office RD) করা যেতে পারে।

RD কী(Post office RD) ?

RD অর্থাৎ রেকারিং ডিপোজিটের (Post office RD) নিয়ম হল এতে প্রতি মাসে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমা দিতে হয়। কোনও ব্যক্তি নিজের নামে এই অ্যাকউন্ট খুলতে পারেন। আবার সন্তানের নামেও RD খুলে শিশুর জন্য বিশেষ সুবিধা নিতে পারেন। বর্তমান নিয়ম অনুসারে, পোস্ট অফিস RD-এ 5.8% বার্ষিক সুদ পাওয়া যায়। যা কিনা যে কোনও সাধারণ ব্যাঙ্কের FD-এর তুলনায় অনেকটা বেশি। অন্যদিকে একটি লাভ হল এই স্কিমে পাওয়া সুদ ত্রৈমাসিকে চক্রবৃদ্ধি ভিত্তিতে আসল পরিমাণের সঙ্গে যোগ করা হয়।

মাসে কত টাকা জমা করবেন?

যদি কোনও ব্যক্তি নবজাতক শিশুর নামে একটি RD অ্যাকাউন্ট খোলেন এবং প্রতিদিন 67 টাকা হারে মাসে মাত্র 2,000 টাকা বিনিয়োগ করেন, তবে 5 বছর পর তিনি পাবেন 1.20 লাখ টাকা। কারণ এতে যথেষ্ট পরিমাণ সুদ পাওয়া যায়, আবার তা যোগ হয় চক্রবৃদ্ধি আকারে। ফলে 5 বছর পরেই মোটা টাকা পাওয়া যাবে।

ম্যাচিউরিটির আগে সুবিধা পাবেন কীভাবে?

RD-তে ম্যাচুরিটির মেয়াদ 5 বছরের হয়, তবুও যদি বিনিয়োগকারীর হঠাৎ করেই অর্থের প্রযোজন হয়, সেক্ষেত্রে তিনি 3 বছর পর প্রি-ম্যাচিউরিটির সুবিধা পাবেন(Post office RD) ।

১ বছর পর লোনের সুবিধা রয়েছে?

এই স্কিমটি চালানোর পর এক বছর পার করলেই কোনও ব্যক্তি এর পরিবর্তে লোনও পেতে পারেন।১ বছর পরে অ্যাকাউন্টে থাকা ব্যালেন্সের ৫০% এর সমান ঋণ নিতে পারেন। পরবর্তীতে এই ঋণ একবারে বা কিস্তিতে পরিশোধ করা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.