Jio Scholarship 2022

Jio Scholarship 2022: জীবনে সাফল্য অর্জন করতে হলে শিক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষা ছাড়া জীবনে সফলতা পাওয়া যায় না। তাই প্রত্যেকেরই শিক্ষিত হওয়া দরকার। উচ্চশিক্ষা নিলেই জীবনে উন্নয়ন সম্ভব হবে। কিন্তু এই গরীব দেশে অধিকাংশ মানুষেরই নুন আনতে পান্তা ফুরায়,তাই স্বাভাবিকভাবেই সেই সব পরিবারের ছেলেমেয়েরা তাদের লেখাপড়া চালিয়ে যেতে পারে না।

Driving licence download: মাত্র ১ মিনিটে বাড়িতে বসেই লার্নার ও ড্রাইভিং লাইসেন্স ডাউনলোড করুন,সহজ উপায়টি দেখুন

কারন তাদের খাদ্যের জোগান দিতেই রীতিমত হিমসিম খেতে হয়। তাই লেখাপড়া চালানোর খরচ জোগার করা তাদের কাছে অসম্ভব ব্যাপার। সেই কারনে পড়াশোনায় ভাল হলেও অর্থের অভাবে তাদের হয়ত মাঝ পথেই পড়া ছেড়ে দিতে হয়। তাই অর্থনৈতিক ভাবে পিছিয়ে পড়া বাংলার মেধাবী ছেলেমেয়েদের লেখাপড়ায় আরও উৎসাহিত করতে বৃত্তি প্রদান করে থাকে। রাজ্য সরকার ও কেন্দ্র সরকার এইসব দরিদ্র মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের জন্য একাধিক স্কলারশিপের ব্যবস্থা করেছে।

এই স্কলারশিপগুলি প্রদানের লক্ষ্য বাংলার দরিদ্রসীমার নীচে বসবাসকারী ছাত্রছাত্রীদের উচ্চশিক্ষায় সহায়তা করা। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (HS) বা অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন ছাত্রছাত্রীদের এই সব স্কলারশিপ দেওয়া হয়। তবে শুধু সরকারী স্কলারশিপ নয়, বেসরকারীও নানান বৃত্তি বা স্কলারশিপ আছে। ভালো নম্বার পেয়ে পাশ করা মেধাবী পড়ুয়াদেরও বেসরকারি সংস্থাগুলি বৃত্তি প্রদান করেন।

বিরাট সু-সংবাদ! সরকারি কর্মীরা এবার থেকে ট্রেন ফ্রিতে সফর করতে পারবেন, কোন টিকিট লাগবে না

এমনি একটি বেসরকারি স্কলারশিপ হল Jio Scholarship । সাধারণত দরিদ্র সীমার নীচে থাকা ছেলে মেয়েদের জন্যই এই স্কলারশিপ চালু করা হয়েছে। মাধ্যমিক পাস, উচ্চমাধ্যমিক পাস ও স্নাতক ডিগ্রি পাস সকল পড়ুয়ারা এই স্কলারশিপ পাবেন। এই স্কলারশিপে আবেদন করতে হলে পড়ুয়াদের পারিবারিক আয় দ্রারিদ্য সীমার নিচে হতে হবে। এটি একটি বেসরকারি স্কলারশিপ

সকল সরকারি স্কলারশিপ এর পাশাপাশি পড়ুয়ারা এই স্কলারশিপেও আবেদন করতে পারবেন। এই স্কলারশিপে সকল কাস্টের পড়ুয়ারা আবেদন করতে পারবেন। কারা কারা এই স্কলারশিপ পাবেন,যোগ্যতা কি লাগবে, কত টাকা করে দেওয়া হবে সমস্ত কিছু নীচে আলোচনা করা হল-

স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের জন্য সরাসরি অনলাইনে আবেদন করে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সুযোগ সুবিধা পেয়ে যান

  • স্কলারশিপ এর নাম:- জিও স্কলারশিপ (JIO SCHOLARSHIP)।
  • প্রদানকারী সংস্থার নাম:- Reliance Jio Infocomm Limited RJIL)

আবেদনের শর্তাবলী:-

১)আবেদনকারীকে অবশ্যই একজন ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।

২)আবেদনকারীর পারিবারিক অবস্থা খারাপ থাকলে বা আবেদনকারীর পারিবারিক ইনকাম দারিদ্র সীমার নিচে হতে হবে।

৩)এখানে মাধ্যমিক পাস উচ্চ মাধ্যমিক পাস, কলেজের বা ইউনিভার্সিটির পড়ুয়ারা আবেদন করতে পারবে।

  • কারা কারা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন:-

মাধ্যামিক, উচ্চমাধ্যমিক, PG-UG এবং ডিপ্লোমা কোর্সে পড়া ছাত্র-ছাত্রীরা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারেন।

  • এই স্কলারশিপে আবেদন করতে হলে কোন ক্লাসে কত % নাম্বার লাগবে:-

১)মাধ্যমিক পাশ পড়ুয়ারা ৭০ থেকে ৮৫ % নাম্বার পেলে জিও স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবেন।

২)উচ্চ মাধ্যমিক পাস পড়ুয়াদের ক্ষেত্রে ৬০ থেকে ৮৫% নাম্বার পেলে এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবেন।

৩)গ্রাজুয়েশন পাস করে এই স্কলারশিপে আবেদন করলে সেক্ষেত্রে ৭৫% এর ওপরে নাম্বার পেতে হবে।

৪)যে সকল প্রার্থী পোস্ট গ্র্যাজুয়েট করছে তাদের ক্ষেত্রে ৭৫% বেশি নাম্বার পেতে হবে।

  • টাকার পরমাণ:-

১)মাধ্যমিক -৩৫ হাজার টাকা।

২) উচ্চমাধ্যমিক-৪৫ হাজার টাকা।

৩)UG -৫২ হাজার টাকা।

৪)PG -৫৫ হাজার টাকা।

  • আবেদন প্রক্রিয়া :-

এই স্কলারশিপে অফলাইন অনলাইন দুইভাবে আবেদন করা যায়।কিভাবে আবেদন করবেন দেখে নিন-

  • অফলাইন আবেদন পদ্ধতি :-

১)অফলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে হলে প্রথমেই প্রার্থীদের সংশ্লিষ্ট জিও কোম্পানিতে গিয়ে ফর্ম কালেক্ট করতে হবে।

২) তারপর প্রার্থীর পার্সোনাল ডিটেলস দিয়ে ফ্রম ফিলাপ করে নিতে হবে।

৩)প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ডকুমেন্ট দিতে হবে।

৪)একটি পাসপোর্ট সাইজের ফটো লাগাতে হবে। সমস্ত ডকুমেন্ট দেওয়া হয়ে গেলে জিও অফিসে গিয়ে আবেদন পদ্ধতি জমা দিয়ে আসতে হবে।

৫) তারপর সেই অফিস থেকে একটি প্রিন্ট কপি দেয়া হবে, যেটি যত্ন সহকারে রেখে দিতে হবে। পরে সেই কপিটি থেকে আপনাদের স্ট্যাটাসটি চেক করতে পারবেন।

Lakhir Bhandar: লক্ষীর ভান্ডার নিয়ে দীর্ঘ জট কাটতে চলেছে?কি সেই জট জেনে নিন

  • অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন প্রক্রিয়া:-

১)অনলাইনে আবেদন করার জন্য প্রার্থীদের প্রথমে ওপেন করতে হবে https://www.jlo.com/এই ওয়েবসাইটটি।

২)ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর Jio Scholarship Application Tab এই অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৩)তারপর অ্যাপ্লিকেশন ফর্মটি ডাউনলোড করতে হবে।

৪)তারপর সমস্ত ডকুমেন্ট কি ফিলাপ করে নিতে হবে তারপর সংশ্লিষ্ট জিও অফিসে গিয়ে জমা দিয়ে আসতে হবে।

৫)প্রার্থীদের অবশ্যই বৈধ ফোন নাম্বার দিতে হবে।

  • প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট:-

১)স্থায়ী বাসিন্দায় প্রমাণপত্র।

২)আধার কার্ড।

৩)ভোটার কার্ড।

৪)রেশন কার্ড।

৫)ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার।

৬)আবেদনকারী পাসপোর্ট সাইজের ফটো।

  • আবেদনের শেষ তারিখ :- ইতিমধ্যেই এই স্কলারশিপের আবেদনপত্র প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। আবেদন প্রক্রিয়া ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত চলবে।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের ফলো করুন

👍 Google News

👍 টেলিগ্রাম চ্যানেলে

By Probir Biswas

আমি প্রবীর বিশ্বাস Webscte.in এ সকল প্রকারের স্কলারশিপ সহ বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য, সাথে টেক নিউজ, বিনোদন, ব্যবসা-বানিজ্যের ওপরও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আপডেট দিয়ে থাকি, ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.