Business Idea

Business Idea: ‘লেখাপড়া করে যে গাড়ি ঘোড়ায় চড়ে সে’ এই কথাটা ছোটবেলায় আমরা প্রত্যেকেই হয়ত মায়ের কাছে অনেকবার শুনেছি। এই কথাটা সত্যও হলেও এখন দেখছি যে লেখাপড়া করে যে টেনশনেতে ভোগে সে। হ্যা ঠিকই ভারতের প্রধান সমস্যা হল বেকার সমস্যা। বেকারত্ব বর্তমানে এক ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। বিশ্বজুড়ে বেকারত্ব যে হারে বাড়ছে তার প্রভাব আমাদের দেশেও পড়ছে। পৃথিবীর অন্যান্য দেশে যেখানে শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা কমছে,সেখানে আমাদের দেশে তার উলটোটা হচ্ছে।

WB Health Recruitment 2022: মাধ্যমিক পাশে শুধু ইন্টারভিউ নিয়ে সামাজিক স্বাস্থ্য কর্মী পদে নিয়োগ

দেশে ক্রমেই শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা বেড়েই চলছে। আমাদের দেশের বেকারদের বেশির ভাগ উচ্চ মাধ্যমিক, স্নাতক বা স্নাতকোত্তর ডিগ্রি রয়েছে।বর্তমানে স্নাতকোত্তর লাভ করলেও চাকরি অনিশ্চিত, ডক্টরেট করা যুবকরা পর্যন্ত চাকরির খোঁজে দিকবিদিক ঘুরে বেড়ায়। শিক্ষিত বেকারের হার বাড়াটা মোটেও কোনো কাজের কথা নয়। বর্তমানে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করা যেন বেকারত্বের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

Electric Bill: বিদ্যুতের বিল কমে অর্ধেক হবে! শুধু এই যন্ত্রটি যুক্ত মিটারের সাথে

যত দিন যাচ্ছে কর্মসংস্থানের তুলনায় বাড়ছে শিক্ষিত বেকার তরুণ-তরুণীর সংখ্যা। বেকারত্বের মর্মান্তিক সমস্যা ভারতে এখন ক্রমশ প্রকট হচ্ছে। কয়েক বছরে বেকারত্বের হার প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে গিয়েছে,এটা উচ্চশিক্ষিতদের জন্য বড় দুঃখজনক। আর করোনা অতিমারীর কারনে এই বেকারত্ব সমস্যা আর বড় আকার ধারন করেছে। গত দুবছর যাবত গোটা পৃথিবীর আর্থিক হাল বেশ শোচনীয়।

বেহাল অর্থনীতির কবলে পড়ে সাড়া বিশ্বের বহু মানুষই কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। সাম্প্রতিক সময়ে তার ছবি বেশ স্পষ্ট। সরকারি হোক কিংবা বেসরকারি চাকরির বাজারের অবস্থাও বেশ করুন। আর তাছাড়া ভারতের জনসংখ্যা যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে সরকারের পক্ষে সকলকে চাকরি দেওয়া সম্ভব নয়। তাই জীবিকা নির্বাহ করার জন্য আমাদের নিজেদের ভাগ্য নিজেদেরই নির্ধারণ করতে হবে। হয় নিজেদের দেশে নয় বিদেশে ছোটখাটো ব্যবসা শুরু করে জীবিকা নির্বাহ করতে হবে।

Lakshmi Bhandar prakalpa: আর পাবেন না লক্ষ্মী ভান্ডারের টাকা, রাজ্য সরকারের করা বিজ্ঞপ্তি,দেখুন কোন সকল মহিলারা পাবেন না

তাই বিকল্প কর্মসংস্থান হিসাবে যে কোনও ছোটখাটো (small business) ব্যবসাকে বেছে নেওয়া যেতে পারে। কিন্তু সেখানেও রয়েছে সমস্যা। কারণ ব্যবসা করতে গেলে তো পুঁজির দরকার। কোথায় গেলে পাওয়া যাবে পুঁজি। বহু মানুষই ব্যবসা শুরু করতে চান। কিন্তু এখানে পুঁজির অভাব বড় অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়। তবে এ বিষয়ে সরকারি বিভিন্ন প্রকল্প থেকে সহজেই পুঁজি অর্থাৎ মুলধনের ক্ষেত্রে টাকার সন্ধান হতে পারে। তাই চিন্তা না করে নিজে অথবা সরকারি অনুদান প্রকল্পের মাধ্যমে স্বল্প সুদে ঋণ গ্রহণ করে বাড়িতে বসেই যে কোনও ছোটোখাটো ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে।

Swasthya Sathi card: স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নিয়ে রাজ্যবাসীর জন্য বিরাট সুখবর! নতুন কি কি সুবিধা পাবেন দেখুন

কিন্তু কি ব্যবসা শুরু করলে ভালো হয় তা বুঝে ওঠা বেশ মুশকিল। বাড়িতে বসে অল্প পুঁজিতে (small investment) ঠিক কি ধরণের ব্যবসা করলে আপনি সহজেই হতে পারবেন লাখপতি। সেই ব্যবসা সম্পর্কে সম্যক ধারণা হওয়া বিশেষ প্রয়োজন।আপনিও যদি কম বিনিয়োগে বাম্পার আয়ের ব্যবসার পরিকল্পনা করে থাকেন, তবে আপনার জন্য সেরা সুযোগ রয়েছে। এখানে এমন একটি ব্যবসার কথা বলা হচ্ছে, যা কম পুঁজিতে শুরু করে মোটা টাকা উপার্জন করা সম্ভব হবে।

তাই অল্প পুঁজিতে (capital) ব্যবসা করে সহজেই আপনি কিভাবে সাফল্য পেতে পারেন আমরা সেই বিষয়টিই আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরব। তাহলে চলুন আজকের আলোচিত ব্যবসা (Business Idea) সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

অল্প (small investment) পুঁজিতে আপনি কি ব্যবসা শুরু করবেন?

বাড়িতে বসে অল্প পুঁজিতে টোফুর অর্থাৎ পনিরের ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে।

টোফুর আসলে কি?

টোফুর হল এক ধরণের পনির। যা দুধের মাধ্যমে ছানা থেকে তৈরি না হয়ে একে তৈরি করা হয় সয়াবিন থেকে। অর্থাৎ সয়া পিষে যে দুধ বের হয় তার থেকেই এই পনির তৈরি করা হয়। এ বিষয়ে চিকিৎসকরা বলছেন এই উপকরণটি শরীরের পক্ষে বেশ উত্তম এবং স্বাস্থ্যকর।

ব্যবসা করতে গেলে কি ধরণের পুঁজি অর্থাৎ মুলধনের দরকার?

এই ব্যবসা (Business Idea) বাড়িতে বসেই যে কেউ করতে পারেন। এই ব্যবসা শুরু করতে মাত্র ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা হলেই সহজেই এই টোফুর জাত সয়া পনিরের ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে। এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা আরও বলেছেন ইতিমধ্যেই এই পনির বাজারে খুবই জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। কারণ এটি দুধের পনিরের থেকে বেশি সুস্বাদু। তাই এই ব্যবসায় বাজার ধরার ক্ষেত্রে বেশ সুবিধাই হবে তা বলাই যায়।

মাসিক আয় কত হতে পারে?

এই ব্যবসা টি মূলত স্বল্প পুঁজির হলেও আয়ের ক্ষেত্রে এটি। বেশ লাভ জনক। এই ব্যবসা থেকে মাস গেলে তিন থেকে চার লক্ষ টাকা সহজেই আয় করা সম্ভব।

টোফু তৈরি করবেন কীভাবে?

টোফু তৈরি করা এমনি দুধ থেকে পনির বানানোর মতোই সহজ। এর মধ্যে কেবল একটি পার্থক্য রয়েছে। এখানে প্রথমে দুধ বানাতে হয় । এর জন্য প্রথমে সোয়াবিন পিষে নিয়ে ১:৫ অনুপাতে জলের সঙ্গে ফোটাতে হবে। বয়লারে ও গ্রাইন্ডারে এক ঘণ্টায় প্রায় ৪ থেকে ৫ লিটার দুধ তৈরি হয়ে যাবে। এছাড়া দুধ সেপারেটারে দিয়ে দিতে হবে। এর জেরে দুধ দইয়ের মতো ঘন হয়ে যাবে । এর থেকে বাকি জল বের কর নিলে প্রায় ১ ঘন্টায় ২.৫ থেকে ৩ কিলোগ্রাম পনির বানিয়ে ফেলতে পারবেন।

টোফু জাতীয় সয়া পনির তৈরি করতে কি ধরণের যন্ত্রপাতি বা ব্যবসায়িক সরঞ্জাম প্রয়োজন?

১) ফ্রিজ (পনির সঞ্চিত করে রাখার জন্য প্রয়োজন ফ্রিজ -এর)।

২) বয়লার (সয়া সেদ্ধ করার জন্য প্রয়োজন বয়লারের)।

৩)জার, (সেদ্ধ করা সয়া একটি বড় আকারের জারে রেখে দিতে হবে)।

তবে আপনি যদি আর বেশি টাকা আয় করতে চান তাহলে এটি তৈরিতে যে কাঁচামাল লাগে অর্থাৎ সয়ার ব্যবস্থা করতে হলে বাড়িতে সয়া গাছ লাগানো যেতে পারে। সেখান থেকেই কাঁচামাল সয়া পাওয়া যাবে নির্বিঘ্নে।বাড়ির গাছ থেকে উৎপন্ন সয়া দিয়ে টোফুর তৈরি করে আর বেশি টাকা আয় করতে পারেন।

আপনিও কী ব্যবসা (Business Idea) শুরু করার পরিকল্পনা করছেন ? তাহলে খাওয়া-দাওয়ার সঙ্গে যুক্ত এই ব্যবসা সহজেই শুরু করে মোটা টাকা আয় করতে পারবেন । টোফু বা সয়া পনিরের ব্যবসায় সামান্য পরিশ্রম ও সঠিক বোঝাপড়ার সাহায্যে আপনি নিজের ব্র্যান্ড তৈরি করতে পারবেন । মাত্র ৩ থেকে ৪ লক্ষ টাকার ইনভেস্টমেন্টে কয়েক মাসের মধ্যে আপনি হাজার নয় বরং লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করতে পারবেন।তাই আর দেরি না করে অল্প পুঁজির ব্যবসা করে দ্রুত সাফল্য পেতে টোফুর জাতীয় পনিরের ব্যবসা শুরু করুন।

By Probir Biswas

আমি প্রবীর বিশ্বাস Webscte.in এ সকল প্রকারের স্কলারশিপ সহ বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য, সাথে টেক নিউজ, বিনোদন, ব্যবসা-বানিজ্যের ওপরও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আপডেট দিয়ে থাকি, ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.